ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রনের সহজ উপায়


আমাদের দেশে দিন দিন ডায়াবেটিক রোগীর সংখ্যা আশঙ্কাজনক হারে বাড়ছে। আমাদের মধ্যে অনেকের এ রোগটি না হলেও আমরা কিন্তু ডায়াবেটিসে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকিতে রয়েছি। যারা ডায়াবেটিসে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকিতে রয়েছেন তাদের জেনে রাখা ভালো, একটি গবেষণায় দেখা গেছে, দৈনন্দিন জীবনযাপনে কিছু নিয়ম মেনে চললে ডায়াবেটিসের ঝুঁকি ৮০ ভাগ কমানো যায়। তাই আসুন জেনে নিই ডায়াবেটিস প্রতিরোধে সহজ নিয়মগুলো :

১. খাবার খাওয়ায় সাবধানতা : চিনিযুক্ত খাবার কম খাওয়া, কার্বোহাইড্রেট কম খাওয়া। অতিরিক্ত ফাস্টফুড, কোমল পানীয় এবং চকলেটসহ যে কোনো মিষ্টি খাবার কম খেতে হবে। ঘরে তৈরি খাবার খাওয়ার অভ্যাস করতে হবে। প্রতিদিনের খাবার তালিকায় ফল ও শাকসবজি রাখতে হবে।

২. দেহের ওজন ঠিক রাখতে হবে। শরীরে অতিরিক্ত মেদ কিংবা চর্বি জমতে দেওয়া যাবে না। উচ্চতা অনুযায়ী দেহের ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখতে হবে।

৩. নিয়ম করে দিনে অন্তত ২০ মিনিট ব্যায়াম করতে হবে, নিজে ব্যায়াম করুন ও পরিবারের অন্য সদস্যদের দিনে অন্তত কিছু সময় ফ্রি হ্যান্ড এক্সারসাইজে উৎসাহিত করুন।

৪. ধূমপান ও মদ্যপানের অভ্যাস থাকলে তা পরিহার করতে হবে।

৬. যারা সারা দিন বসে থাকার কাজ করেন তাদের কায়িক পরিশ্রম করতে হবে। অথবা রুটিনমাফিক দিনে অন্তত আধাঘণ্টা হাঁটতে হবে।

৫. যাদের বংশে ডায়াবেটিসের ইতিহাস আছে তাদের অবশ্যই সাবধান থাকতে হবে। তাদের নিয়মিত ব্লাড সুগারের মাত্রা পরীক্ষা করে ডায়াবেটিসের ঝুঁকি এড়িয়ে চলতে হবে।

তাই যারা ডায়াবেটিসের ঝুঁকিতে রয়েছেন তারা দুশ্চিন্তা না করে দৈনন্দিন জীবনযাপন ও খাওয়া-দাওয়ায় একটু পরিবর্তন আনুন ও নিয়ম মেনে শৃঙ্খলাবদ্ধ থাকুন। মনে রাখতে হবে, প্রতিকারের চেয়ে প্রতিরোধই ডায়াবেটিসের মূল সমাধান। 

ডা. মহসীন কবির 
জনস্বাস্থ্য বিষয়ক লেখক ও গবেষক
কনসালটেন্ট, জেরিয়েট্রিক কেয়ার সেন্টার
জাপান বাংলাদেশ ফ্রেন্ডশীপ হাসপাতাল

অ্যাম্বুলেন্স হার্বাল ও আয়ুর্বেদিক হোমিওপ্যাথি রুপ চর্চা