গবেষেণায় উটে এসেছে ভিটামিন -ডি সল্পতা সমস্ত রোগের প্রদান কারণ।


ভিটামিন- ডি কীঃ

ভিটামিন- ডি একটি ভিটামিন, যা আমাদের শারীরৃত্তীয় প্রক্রিয়ায় নানা ভূমিকা রাখে।

ভিটামিন-ডি কী কী কাজ করেঃ

ভিটামিন- ডি এর নানা রকম ভূমিকার মধ্যে গুরুত্বপূর্ণ কয়েকটি-

• শরীরে ক্যালসিয়াম ও ফসফেটের মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করে,দাঁত ও হাঁড সুস্থ-সবল রাখে

• মাংসপেশির সংকোচন-প্রসারণে সাহায্য করে ও কর্মক্ষমতা বাড়ায়।

• রক্তচাপ ও ওজন নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করে।

• মানসিক আবসাদ কমায়। ভিটামিন-ডি এর উৎসঃ

• সূর্যের আলো- এটিই মানবদেহের ৯০ ভাগ ভিটামিন-ডি এর উৎস

• দুধ,সামুদ্রিক মছ, মাশরুম ,কড লিভার অয়েলর মত কিছু খাবার ।

ভিটামিন-ডি স্বল্পতার প্রভাবঃ

শিশুদের ক্ষেত্রে-

• রিকেটস রোগ, এর কারণে হাঁড নরম হয়ে বেঁকে যেতে পারে

• রক্তে ক্যালসিয়াম কমে গিয়ে অচেতন হয়ে যেতে পারে

বয়স্কদের ক্ষেত্রে-

• হাঁড ক্ষইয়প্রাপ্ত ও দূর্বল হওয়ায় ভেঙেও যেতে পারে

• সারা শরীরে ব্যাথা ও মাসংপেশি দুর্বল হতে পারে

• হ্যদরোগ স্বাস্থ্য-সহ বেশ কিছু রগের ঝুঁকি বাড়ায়

ভিটামিন-ডি ঘাটতির নানা উপসর্গঃ

ভিটামিন-ডি ঘাটতির নানা উপসর্গের মধ্যে প্রধান কয়েকটি-

• শারীরিক দুর্বলতা ও দ্রুত ক্লান্ত হয়ে ্যাওয়া

• পুরো শরীর ব্যথা,কোমরে ব্যাথা,মাংসপেশিতে ব্যাথা

• ঘনঘন সংক্রান্ত ও কোনো ক্ষত সহজে না সারা

• হাঁড় ক্ষয়ের নানা উপসর্গ • মানসিক অবসাদ

• চুল পড়ে যাওয়া ঘাটতির ঝুঁকি কাদের বেশিঃ

• যাদের ওজন স্বাভাবিকের চেয়ে বেশি (BMI>40)

• যারা পর্যাপ্ত সূর্যের আলর সংস্পশে আসেন না

• নিদিষ্ট সময়ের আগে জন্ম নেওয়া শিশু

• যেসব মায়ের ভিটামিন-ডি ঘাটতি রয়েছে,তাদের সন্তান

• কিছু রগের কারণে

• বর্তমান বিশ্বে নগরায়ানের প্রভাবে পুরো বিশ্ববাসীই ভিটামিন-ডি ঘাটতির ঝুঁকিতে রয়েছে।

ভিটামিন-ডি র অভাব পূরণে মেনে চলুন কিছু পরামর্শ

 

ভিটামিন ডি’র প্রধান উৎস সূর্যালোক। এছাড়াও আরও কিছু প্রাণিজ উপাদান থেকে ভিটামিন ডি পাওয়া যায়।

যেমন- ডিমের কুসুম, দুধ, মাখন, যকৃত, তৈলাক্ত ও সামদ্রিক মাছ ইত্যাদি। তাছাড়া শিশু খাদ্য ও টিনজাত গুড়াদুধে ভিটামিন ডি যোগ করা থাকে।

ভিটামিন ডি’র ঘাটতি পূরণের জন্য এসব খাবার খাওয়া ও নিয়ম করে সকালের রোদে কিছুক্ষণ হাঁটাহাটি করা যেতে পারে।

তবে মনে রাখতে হবে, অতিরিক্ত ভিটামিন ডি গ্রহণ করা ক্ষতিকর। এতে রক্তে ক্যালসিয়াম ও ফসফরাসের মাত্রা বেড়ে যায়। তখন বমি ভাব, ডায়রিয়া ও কিডনিতে নানা রকমের অসুবিধা দেখা দিতে পারে।

অ্যাম্বুলেন্স হার্বাল ও আয়ুর্বেদিক হোমিওপ্যাথি রুপ চর্চা