লাউয়ের চিকিৎসাগুন


লাউ লিভারের কার্যক্ষমতা বাড়াতে সাহায্য করে এমন কথাই বলছেন গবেষকরা। এটি জন্ডিসের পথ্য হিসেবে ভালো কাজ করে। এতে বিদ্যমান প্রচুর পানি দেহে পানির পরিমাণ ও ত্বকের আর্দ্রতা ঠিক থাকে। এটি ডায়রিয়াজনিত পানিশূন্যতাও দূর করে।

এটি প্রসাবের সংক্রমণজনিত সমস্যা দূর করে ও কিডনির কার্যক্ষমতা বৃদ্ধি করে। এটি মূত্রনালির বিভিন্ন রোগ সারায়। উচ্চ রক্তচাপ বিশিষ্ট রোগীর জন্য এটি একটি আদর্শ খাবার।

আয়ুর্বেদিক চিকিৎসকরা বেশি বেশি লাউ খাওয়ার পরামর্শ দেন। কোষ্ঠকাঠিন্য, পাইলস, পেট ফাঁপা প্রতিরোধে সহায়ক লাউ নিদ্রাহীনতাও দূর করে। লাউয়ের ক্যালসিয়াম ও ফসফরাস দাঁত ও হাড়কে মজবুত করে। চুলের গোড়া শক্ত করে ও ধূসর হয়ে যাওয়া প্রতিরোধ করে। এতে গ্লুকোজ ও চিনি নেই বললেই চলে।

ফলে ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য লাউ খুবই উপকারী খাবার। শরীরের ওজন কমাতে কার্যকর লাউ রক্তের শর্করার মাত্রাও স্বাভাবিক রাখে। এটি মানবদেহের তাপমাত্রা স্বাভাবিক পর্যায়ে রাখতে সাহায্য করে। তাই লাও খেতে কেউ অনিহা জানাবেন না। সুস্থ্য থাকতে খাদ্য তালিকায় নিয়মিত লাউ রাখতে পারেন।

সূত্র : ওয়েবসাইট

অ্যাম্বুলেন্স হার্বাল ও আয়ুর্বেদিক হোমিওপ্যাথি রুপ চর্চা