ফেনিতে হঠাৎ ৮ ছাত্রী অজ্ঞান


ফেনীর ফুলগাজী উপজেলার বন্ধুয়া দৌলতপুর উচ্চ বিদ্যালয়ে সোমবার সকাল ১০টায় জাতীয় সংগীত পরিবেশনের পর ছাত্র-ছাত্রীরা শ্রেণিকক্ষে প্রবেশ করার সাথে সাথেই নবম শ্রেণির ছাত্রী শামীমা আক্তার হঠাৎ অজ্ঞান হয়ে পড়ে। তাকে অজ্ঞান হতে দেখে সপ্তম শ্রেণি ও অষ্টম শ্রেণির আরো ৭ ছাত্রী অজ্ঞান হয়ে লুটিয়ে পড়ে। বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রবিউল হক মজুমদার জানান, খবর পেয়ে সাথে সাথে তিনি ফুলগাজী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সাইফুল ইসলামকে ফোনে অবগত করেন। এছাড়া ফুলগাজী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে খবর দিলে সেখান থেকে ডাক্তার শরফুদ্দিন মাহমুদ এসে তাৎক্ষণিক অজ্ঞান হওয়া ৮ ছাত্রীকে পর্যবেক্ষণ করে ফেনী সদর হাসপাতালে প্রেরণ করেন। অজ্ঞান হওয়া ছাত্রীরা হলো- নবম শ্রেণির শামীমা আক্তার, অষ্টম শ্রেণির সাবরিনা আক্তার, সপ্তম শ্রেণির রাজিয়া সুলতানা, নাজিফা আক্তার, সায়েরা আক্তার, তানিয়া আক্তার, উম্মে সুমাইয়া, নাহিদা আক্তার। এ সময় ঘটনাস্থলে ছুটে আসেন উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) সাবিনা ইয়াসমিন, মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. এনামুল হক, মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা রেহানা আক্তারসহ এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ। ফুলগাজী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার ডা. শরফুদ্দিন মাহমুদ জানান, এটি ‘ম্যাস হিস্টরিয়া’ রোগ হতে পারে। এ ধরনের রোগ হলে বিশেষ করে ছাত্রীরা হঠাৎ করে মাথা ঘুরে অজ্ঞান হয়ে পড়ে। মানসিক ও আবহাওয়া পরিবর্তনের কারণে এ ধরনের রোগ হতে পারে।
অ্যাম্বুলেন্স হার্বাল ও আয়ুর্বেদিক হোমিওপ্যাথি রুপ চর্চা