কাঁচা হলুদের এত উপকারিতা!


প্রাচীন কাল থেকেই আমাদের দেশে মশলা হিসেবে হলুদের গুরুত্ব অপরিসীম। শুধু যে রান্নায় হলুদ ব্যবহার করা হয়, তাই নয় সুন্দর ত্বক পেতে আগেকার দিনে হলুদ বাটা মাখারও চল ছিল। তার সঙ্গে রোজ সকালে এক টুকরো কাঁচা হলুদ খেলেও নানা উপকারী ফল পাবেন আপনি।

এক ঝলকে দেখে নেওয়া যাক, হলুদ খাওয়ার উপকারিতা। 

১. হলুদ গ্যাস-অম্বল থেকে মুক্তি পেতে সাহায্য করে। কাঁচা হলুদে গ্যাস-নিরোধক উপাদান থাকায় নিয়মতি কাঁচা হলুদ খেলে সহজে গ্যাস-অম্বলের সমস্যা দেখা দেবে না। দেখা গিয়েছে, গ্যাস-অম্বল সারাতে বাজারে যে সব ওষুধ পাওয়া যায়, তার সমান অথবা অনেক সময় তার চেয়েও বেশি অম্বল নিরোধক উপাদান রয়েছে কাঁচা হলুদে।


২. কাঁচা হলুদ মস্তিষ্কের ক্ষমতা বৃদ্ধিতে সাহায্য করে। নিয়মিত কাঁচা হলুদ খেলে অ্যালঝাইমার্স, ডিমেনশিয়া সহ মস্তিষ্কের বেশ কিছু সমস্যা শতহাত দূরে থাকে। বয়স বাড়ার সঙ্গে মানুষের মস্তিষ্কে যে সমস্যা দেখা দেয়, তাকে দূরে সরিয়ে মস্তিষ্ককে আরও সজাগ করে তোলে কাঁচা হলুদ।

৩. এমনকি ক্যানসার নিরোধক হিসেবেও কাজ করে কাঁচা হলুদ। রোজ সকালে খালি পেটে এক টুকরো কাঁচা হলুদ খেলে ক্যানসারে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা অনেকটাই কমে যায়।

৪. হার্টকে ভালো রাখতেও সাহায্য করে কাঁচা হলুদ। নিয়মিত কাঁচা হলুদ খেলে হার্টের অনেক সমস্যাই আপনার কাছে ঘেঁসতে পারবে না।

৫. আর্থারাইটিসের সমস্যাকেও ভালো করে কাঁচা হলুদ। অনেক গবেষণায় এটা প্রমাণিত নিয়মিত কাঁচা হলুদ খেলে আর্থারাইটিসের সমস্যা অনেকাংশেই ভালো হয়ে যায়।

৬. সকালবেলা খালি পেটে নিয়মিত কাঁচা হলুদ খেলে আপনি সহজে বুড়িয়ে যাবেন না। বয়সজনিত নানা সমস্যাকে দূরে রাখে কাঁচা হলুদ।

 কাঁচা হলুদ চিবিয়ে খেতে না পারলে তাজা ফলের রস, স্যুপ- এ সবের মধ্যেও এক চামচ কাঁচা হলুদ মিশিয়ে নিতে পারেন আপনি।

অ্যাম্বুলেন্স হার্বাল ও আয়ুর্বেদিক হোমিওপ্যাথি রুপ চর্চা