বর্ষায় শিশুর যত্ন

    বর্ষাকাল যেমন সবার মাঝে শান্তি বয়ে আনে তেমনি এই বর্ষাকালই আবার বয়ে আনে কষ্টকর জীবন। বর্ষাকাল এমন একটি সময় যে সময়ে দেখা দেয়ে বিভিন্ন ধরণের রোগ।

    ইনফ্লুয়েঞ্জা বা ঠাণ্ডা-জ্বর, ডাইরিয়া, নিউমোনিয়া, ডেঙ্গু ইত্যাদি দেখা দেয় অন্য সময়ের তুলনায় অধিক পরিমাণে। এছাড়া এই বর্ষার মৌসুমে পানিবাহিত রোগ যেমনঃ জণ্ডিস, ডাইরিয়া, কলেরায় আক্রান্ত হয়ে থাকে অনেকেই। বয়স্ক এবং শিশুরা এই সব রোগে বেশি আক্রান্ত হয়ে থাকে।

    অতিরিক্ত বৃষ্টিতে পানি দূষিত হওয়ার পাশাপাশি ব্যাকটেরিয়া ও ভাইরাসের প্রকোপ দেখা দেয়। বৃষ্টিতে ভিজে অনেক শিশুই আক্রান্ত হয় ঠাণ্ডা, জ্বর, গলা ব্যথায়। তাছাড়া যে সব শিশুর অ্যাজমার প্রবণতা থাকে তাদের এই মৌসুমে শ্বাসকষ্ট কাশি বেড়ে যায়। জীবানুমুক্ত রাখতে তাই শিশুকে পরিষ্কার পরিছন্ন রাখুন। বৃষ্টিতে ভিজে গেলে সাথে সাথে মাথা শরীর মুছে ভেজা জামা বদলে ফেলুন। শিশুর জামাকাপড় জীবাণুমুক্ত করার জন্যে স্যাভলন কিংবা ডেটল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

    বাড়ির বাইরের মতই বাড়ির ভিতরও জীবাণু আক্রান্ত হতে পারে। কেননা স্যাঁতস্যাঁতে জায়গা থাকলেই জীবানু হওয়ার আশঙ্কা থাকে। তাই পরিষ্কার পরিছন্ন রাখতে হবে বাড়িটাকেও। শিশুর হাঁচি কাশি শুরু হলেই ডাক্তারের পরামর্শ অনুযায়ী অ্যান্টি-হিস্টামিন জাতীয় ওষুধ দিন। এতে শিশুর হাঁচি কাশি প্রকোপ আকার ধারণ করতে বাঁধা দিবে।

    বর্ষা মৌসুমে শিশুকে সুস্থ রাখতে তার খাওয়া-দাওয়ার প্রতি হতে হবে সচেতন। শরীরে পানি ঘাটতি যেন না হয় তার দিকে খেয়াল রাখতে হবে। পর্যাপ্ত পরিমাণ পানি পান করাতে হবে শিশুকে। যে পানি পান করাবেন তা সময় নিয়ে ভাল ভাবে ফুটিয়ে নিতে হবে।