কিভাবে মস্তিষ্কের ক্ষমতা বাড়াবেন

    সবাই চায় তার মস্তিষ্কের কর্মক্ষমতা বাড়াতে।যারা মস্তিষ্ককে সচল ও প্রানবন্ত রাখতে চান তাদের জন্য সুখবর হলো একটি গবেষনায় পাওয়া যায় খাবার তালিকায় কিছু পরিবর্তন ঘটালে মস্তিস্কের বুদ্ধির উন্নতি ঘটে,মস্তিষ্ক ক্ষতির হাত থেকে রক্ষা পায় এবং শরীরে বার্ধক্যেও আসে দেরিতে।তাই আসুন জেনে নেই মস্তিষ্কের ক্ষমতা বৃদ্ধিতে প্রয়োজনীয় কিছু পরামর্শÑ 

    ২. মস্তিষ্কে ফলিক এসিডের ঘাটতি হলে বিষন্নতা হতে পারে, এজন্য পরামর্শ হচ্ছে প্রতিদিনের খাবার তালিকায় শাকসবজি ও ফলমূল রাখতে হবে।কারন শাকসবজি ও ফলমুলে ফলিক এসিড রয়েছে।

    ৩. মস্তিষ্কের সুরক্ষার জন্য প্রয়োজন এন্টি অক্সিডেন্ট। আর বিপুল পরিমানে এন্টি অক্সিডেন্ট রয়েছে উদ্ভিজ তৈল, বাদাম এবং সবুজ পাতার সবজিতে। এগুলো খেলে স্মৃতিশক্তি উন্নত হয়। তাই বেশি বেশি এন্টি অক্সিডেন্ট যুক্ত খাবার খেতে হবে।

    ৪. পরিফেনোল - কারকুমিন এর রয়েছে মস্তিষ্কের সুরক্ষা ক্ষমতা।খাদ্যে ব্যবহৃত হলুদে আছে এই প্রয়োজনীয়  কারকুমিন। গবেষনায় পাওয়া যায় উপমহাদেশের দেশগুলোর খাবার রাঁধতে প্রচুর হলুদ ব্যবহারের কারনে উপমহাদেশে বার্ধ্যক্যকালীন মস্তিষ্কের রোগ আলজেইমার বা ডিমেনশিয়ায় আক্রান্ত হওয়ার সংখ্যা তুলনামুলক কম।

    ৫. ওমেগা- ৩ যুক্ত ফ্যাটি এসিড মস্তিষ্কে শেখার ক্ষমতা ও স্মৃতিশক্তির উন্নতিতে কার্যকরি ভুমিকা রাখে।এছাড়াও এটি বিষন্নতা ও অন্যান্য মানসিক রোগের প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়।সামুদ্রিক মাছ,তৈলাক্ত মাছ, বাদাম, অলিভ অয়েল ইত্যাদিতে প্রচুর ওমেগা- ৩ রয়েছে।যেসব দেশে মানুষ প্রচুর মাছ খেয়ে থাকেন গবেষনায় পাওয়া যায় তাদের মধ্যে ক্লিনিক্যাল ডিপ্রেশন বা বিষন্নতা কম।

    ৬. অন্যদিকে আরেকটি গবেষনায় পাওয়া যায়  ট্রান্স ফ্যাট ও স্যাচুরেটেড ফ্যাট বেশী রয়েছে এ রকম খাবার খেলে মস্তিষ্কের ক্ষমতা কমে যায় ও এসব খাবার মানুষের বুদ্ধিবৃত্তি বাড়ার উপরও ক্ষতিকর প্রভাব ফেলে।যেমন-ফাস্টফুড, ভাজা খাবার, মাখন, কেক, পেস্ট্রি বেশি খেলে বুদ্ধিবিকাশে ক্ষতিকর প্রভাব ফেলে।তাই এসব খাবার কম খাওয়াই ভাল।

     

    ডা. মহসীন কবির

    জনস্বাস্থ্য বিষয়ক লেখক ও গবেষক

    www.healthbd24@gmail.com